খাইখালাসী বা বন্ধুকী বা মর্গেজ (Complete Usufructuary Mortgage )

খাইখালাসী বা বন্ধকী অর্থ হলো ,ভুমির উপস্বত্ব হতে লোন বা দেনা পরিশোধ এর শর্ত বিশেষ।
ষ্টেট একুইজিশন এন্ড টেন্যান্সী এ্যাক্ট ১৯৫০ এর ২ ধারার ৬ ক্লজ ,অর্থ হলো কোন প্রজা (মালিক)লোন হিসেবে গৃহীত অগ্রীম অথবা অগ্রীম গ্রহন করা হবে যে টাকা বা শস্য তা পরিশোধ বা ফেরত দেয়ার নিশ্চয়তা প্রদানের জন্য জামিন হিসেবে তার কোন ভুমির দখল অধিকার লোনদাতার নিকট হস্তান্তর করেন এই শর্তে যে বন্ধকী সময়ের মধ্যে ভুমির উৎপন্ন ফসল বা আয় হতে উক্ত লোন,সকল শুদ পরিশোধ বলে গন্য হবে ।


ষ্টেট একুইজিশন এন্ড টেন্যান্সী এ্যাক্ট ১৯৫০ এর ৯৫ ধারায় খাইখালাসী বন্ধক আইন অনুসারে উপধারায় রেজিষ্ট্রিশন এ্যাক্ট ১৯০৮ অনুসারে এরুপ প্রত্যেক “সম্পুর্ন খাইখালাসী “রেজিষ্ট্রিভুক্ত হতে হবে ।দলিলে যাহাই উল্লেখ থাকুক না কেন ৭ বৎসরের বেশি ইহার মেয়াদ হবে না,৬০ বিঘার বেশি বন্ধকী দেয়া বা নেয়া যাবে না,চুক্তি মোতাবেক সময়ের পুর্বে মর্গেজ মুক্ত করতে হলে সমমান পরিমান টাকা ফেরত পুর্বক বন্ধকী মুক্ত হওয়া যাবে,বন্ধকী সময় অতিক্রম করার পর যদি কোন মর্গেজ গ্রহীতা তা অস্বীকার করেন এবং বন্ধকীমুক্ত না করেন অথবা দখল বুঝিয়ে না দেন তবে ভুমির মালিক ম্যাজিজষ্টেট আদালত বা উপজেলা বা জেলার ক্ষমতাপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত আবেদন করলে,উক্ত কর্মকর্তা প্রয়োজনে বল প্রয়োগ পুর্বক জমি দখল বুঝিয়ে দিবেন ।
-collected

You may also like...

error: Content is protected !!